খবরের বিস্তারিত...


ইয়াজিদ ছিলো একজন কাফের আর প্রত্যেক মু’মিনের উচিত তাকে লা’নত করা

জুলাই 23, 2018 আক্বীদা

আল্লামা আলূসী রাহিমাহুল্লাহ বলেন, ইমাম বারযাঞ্জী তার ইশা’আহ গ্রন্থে, ইমাম হাইসামী তার সাওয়াইক গ্রন্থে উল্লেখ করেছেন যে, ইমাম আহমাদকে তার ছেলে আব্দুল্লাহ জিজ্ঞাসা করেছিলেন ইয়াজিদের উপর লা’নত দেয়া যাবে কি না? উত্তরে তিনি বলেছিলেন, কেন তাকে লা’নত দেয়া যাবেনা যাকে স্বয়ং আল্লাহ কুরআনে কারীমে লা’নত দিয়েছেন।
আব্দুল্লাহ বললেন, আমি তো কুরআন শরীফ অধ্যয়ন করেছি, কিন্তু ইয়াজিদের লা’নতের বিষয়টি পাইনি। তখন ইমাম আহমাদ রাহিমাহুল্লাহ বললেন, আল্লাহ তা’য়ালা পবিত্র কুরআনে ইরশাদ করেন,,
فَهَلْ عَسَيْتُمْ إِنْ تَوَلَّيْتُمْ أَنْ تُفْسِدُوا فِي الْأَرْضِ وَتُقَطِّعُوا أَرْحَامَكُمْ
ক্ষমতা লাভ করলে, সম্ভবতঃ তোমরা পৃথিবীতে অনর্থ সৃষ্টি করবে এবং আত্নীয়তা বন্ধন ছিন্ন করবে।
أُولَٰئِكَ الَّذِينَ لَعَنَهُمُ اللَّهُ فَأَصَمَّهُمْ وَأَعْمَىٰ أَبْصَارَهُمْ
এদের প্রতিই আল্লাহ অভিসম্পাত করেন, অতঃপর তাদেরকে বধির ও দৃষ্টিশক্তিহীন করেন।
– সূরা মুহাম্মাদঃ ২২-২৩
এরপর ছেলেকে উদ্দেশ্য করে বলেন এযিদ যা করেছে তা থেকে অধিক ফাসাদ ও আত্মীয়তার বন্ধন বিনষ্ট করা আর কী হতে পারে?
– রুহুল মা’আনী, ২৬ তম খন্ড, পেইজ নাম্বারঃ ৭২-৭৩
আল্লামা তাফতাযানী রাহিমাহুল্লাহ বলেন, সঠিক কথা হচ্ছে, ইমাম হুসাইন রাদিয়াল্লাহু আনহুকে শহীদ করার ব্যাপারে ইয়াজিদের সম্মতি ছিল। তার উপর আল্লাহর লা’নত পড়ুক। লা’নত পড়ুক তাদের উপর যারা তাকে এ ব্যাপারে সাহায্য করেছে।
– ফায়দুল কাদীরঃ ৩/১০৯ দারুল কুতুবিল ইলমিয়্যাহ
ইমাম যাহাবী রাহিমাহুল্লাহ বলেন, لانسبه ولانحبه
ইয়াজিদ মদীনাবাসীদের সাথে যা করার তা করেছিল এবং ইমাম হুসাইন রাদিয়াল্লাহু আনহুকে, তার ভাইদেরকে এবং পরিবারকে শহীদ করেছিল। সে মাতাল ছিল।
– তারিখুল ইসলামঃ ৫/৩০
– সিয়ারু আ’লামিন নুবালাঃ ৪/৩৭-৩৮
ইমাম হালাবী রাহিমাহুল্লাহ বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেছেন : হে আল্লাহ, যে ব্যক্তি মদীনা বাসীর উপর অত্যাচার করে এবং তাদেরকে ভয় প্রদর্শন করে, তুমি তাকে ভয় প্রদর্শন কর। এমন ব্যক্তির উপর আল্লাহ, ফেরেশতাগণ এবং সকল মানুষের লা’নত বর্ষিত হোক।
” তবে কী বুঝা গেলো, বুঝা গেলো যে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মদীনা আক্রমণকারীর উপর লা’নত দিয়েছেন। সহীহ হাদীস তার প্রমাণ। ইতিহাসবীদ্গণ ঐক্যমতের ভিত্তিতে প্রমাণ করেছেন, ইয়াযিদের নির্দেশে মদীনা শরীফে হত্যা, লুঠ, ধর্ষণ হয়েছে। তাই এই পাপিষ্ঠ লা’নত পাবার উপযুক্ত।”
– মু’জামুল আওসাত লিত তাবারানীঃ ২/১২৫/১
– আস সিলসিলাতুস সাহীহাহ লিল আলবানীঃ ১/৬২০, ১/৩৫১
– আলা মাজমা’ লিল হাইসামীঃ ৩/৩০৬
– আসসীরাতুল হালাবিয়্যাহঃ ২/২৮৭
ইমাম জালালুদ্দীন সুয়ুতী রাহিমাহুল্লাহ বলেন, ইয়াজিদ ও ইবনে যিয়াদ সহ ইমাম হুসাইন রাদিয়াল্লাহু আনহুর হত্যাকারীদের উপর আল্লাহর লা’নত পড়ুক।
– তারীখুল খুলাফাঃ ২০৭
ইবনুল ইমাদ হাম্বালী রাহিমাহুল্লাহ ও আল্লামা ইয়াফেয়ী রাহিমাহুল্লাহ বলেন, যে হুসাইন রাদিয়াল্লাহু আনহুকে শহীদ করেছে অথবা তার নির্দেশ দিয়েছে সে কাফের।
– শাযারাতুয যাহাবিঃ১/৬৮
কোন মু’মিন ইয়াজিদের মুহাব্বাত করতে পারে না; তাকে মুহাব্বাতকারী মু’মিন থাকতে পারে না।
উপর উক্ত আয়াত শরীফ, হাদীস শরীফ ও ইমামগনের ভাষ্য দ্বারা ইয়াজিদের উপর লা’নত দেয়া জায়েয। [সংগৃহীত]

হে আল্লাহ্‌!! আমারা যেনো রাসূলুল্লাহ (ﷺ) ও তার আহলে বায়াতকে বেশি বেশি ভালোবাসতে পারি এবং নেক আমল করতে পারি এ দুয়া হুজুরপাক (ﷺ) -এর ওসিলায় কবুল করুনঃ-
======আমিন!!======

Comments

comments

Related Post