খবরের বিস্তারিত...


দেশবাসীকে মহান বদর দিবসের ঈমানী শুভেচ্ছা

এপ্রিল 09, 2023 বিবৃতি

আজ ১৭ রামাদ্বান, মহান বদর দিবস। মুসলিম উম্মাহর কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এ দিবস। দ্বিতীয় হিজরির এই দিনে ঐতিহাসিক বদর প্রান্তরে শ্বাশত ধর্ম ইসলামের অগ্রযাত্রা রুখে দেয়ার ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে মুসলিম উম্মাহ এক ঐতিহাসিক বিজয়ের ছিনিয়ে এনেছিল। ইসলামের ইতিহাসে প্রথম সম্মুখ সমর অনুষ্ঠিত হয় এই দিবসে। পৃথিবীতে ইসলাম থাকবে কি থাকবে না- এ ফয়সালা হয় বদরের রণাঙ্গনে ঐতিহাসিক এক যুদ্ধের মাধ্যমে। অজ্ঞতার তিমিরাচ্ছন্নতার অবসান ঘটিয়ে একত্ববাদের ঝাণ্ডা নিয়ে শান্তি ও সফলতার চাদরে আচ্ছন্ন ঐশী নূরের আলোকে জগদ্বাসীর জন্য ইসলামের মতো মহান পবিত্র নেয়ামতের সুশীতল ঝর্ণাধারা প্রবহমান থাকার বিষয়টি সুনিশ্চিত হয়েছিল বদরের প্রাঙ্গণ থেকেই। এজন্যই মানবসভ্যতার ইতিহাসে এই দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অপরিসীম। পবিত্র কুরআনে তাই মহান আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে বদর দিবসকে ‘ইয়াওমুল ফুরকান’ তথা সত্য-মিথ্যার প্রভেদকারী দিবস হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। বদর দিবস সুস্পষ্টত অন্যায়ের বিরুদ্ধে ন্যায়ের এবং অসত্যের বিরুদ্ধে সত্যের ঐতিহাসিক জয়ের চিহ্ন বহন করে। জাগতিক শক্তির অসারতা প্রমাণ করে ঈমানী বলে বলীয়ান হয়ে মাত্র ৩১৩ জন রোজাদার, নিরস্ত্র মুসলিম সহস্রাধিক অস্ত্রসজ্জিত কাফের বিরুদ্ধে জয় লাভ করে। এই কারণেই দিবসটি শুধুমাত্র মুসলিম জাতির জন্য নয়, সারাবিশ্ববাসীর কাছে আলাদা তাৎপর্য বহন করে।
বদর দিবসের শিক্ষা মুসলিম উম্মাহর চলার পাথেয়, ইসলামী জীবনযাপনের আদর্শ। দুঃখজনক হলেও সত্য যে, বিশ্বব্যাপী মুসলিম উম্মাহ বদরের অমোঘ শিক্ষা থেকে যোজন যোজন দূরত্বে অবস্থান করছে। এ কারণেই আজ মুসলিম উম্মাহর বেহাল দশা। অধঃপতিত মুসলিম উম্মাহর হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে হলে ব্যক্তিগত জীবন থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক জীবনেও বদরের চেতনা বাস্তবায়নের বিকল্প নেই। দেশব্যাপী মুসলিম উম্মাহর প্রতি পবিত্র মহান বদর দিবসের নিরন্তর শুভেচ্ছা রইল।

শুভেচ্ছান্তে-
মুহাম্মদ ফরিদ মজুমদার
সভাপতি
ইসলামী ছাত্রসেনা

মুহাম্মদ ইমদাদুল ইসলাম
সাধারণ সম্পাদক
ইসলামী ছাত্রসেনা

Comments

comments

Related Post